You are here
Home > অনলাইন ইনকাম > লোগো ডিজাইন কি? লোগো ডিজাইন করে কত টাকা আয় করা সম্ভব?

লোগো ডিজাইন কি? লোগো ডিজাইন করে কত টাকা আয় করা সম্ভব?

লোগো ডিজাইন

 

আমরা অনেকেই অনলাইন ইনকামের বিভিন্ন পথ খুঁজে থাকি। কেউ পাই, আবার কেউ পাই না! অনেকেই আবার কাজ না শিখেই ইনকামের আশা করি। কেউ কেউ তো বিভিন্ন সহজ পথও খুঁজে থাকে। এক্ষেত্রে অনলাইন ইনকামের সবচেয়ে সহজ পথ হলো লোগো ডিজাইন করে ইনকাম করা। আমাদের আজকের এই টপিক লোগো ডিজাইন সম্পর্কিত। সুতরাং মিস করতে না চাইলে থাকেই থাকুন এবং লোগো ডিজাইন করে কিভাবে এবং মাসে কত টাকা ইনকাম জেনারেট করতে পারবেন!

বিজনেস কার্ড ডিজাইন করে ঘরে বসে আয় করবেন কিভাবে জেনে নিনঃ

 

লোগো ডিজাইন কি?

কেবল মাত্র একটি ইমেইজ এবং তাতে থাকা ডিজাইনের মাধ্যমে এক সাথে অনেক কিছুই বহিঃপ্রকাশ করার মাধ্যমই হলো লোগো। যা সাধারণত ক্লায়েন্টের ভাবাদর্শ অনুযায়ী তৈরি হয়ে থাকে। একটি দেশ, প্রতিষ্ঠান, কোম্পানি বা ব্যাক্তিত্ব সহ অনেক কিছু প্রকাশ করতে লোগো এর মতো গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা অন্য কোনোকিছুই পারে না। যার ফলে লোগো এর ব্যবহার চলে প্রতিটা প্রতিষ্ঠানেই। কোনো একটি লোগো দেখলে যদি কারো চোখের সামনে সেই কোম্পানি, দেশ, প্রতিষ্ঠান এর সংক্ষেপে সম্পুর্ণ চিত্র ভেসে উঠে তবেই বুঝতে হবে সেই লোগো ডিজাইনটি স্বার্থক সাথে ডিজাইনারও। যে বিষয় এর উপর ডিজাইন তৈরি করতে হবে তার দিকে পুরোপুরি মনোযোগী হতে পারলেই একটি সুন্দর এবং অর্থবহ লোগো তৈরি করা সম্ভব।



 

কিভাবে লোগো ডিজাইন করা হয়?

একটা লোগো ডিজাইন করার আগে ডিজাইনটি করতে কি কি বিষয় বা পয়েন্ট মাথায় রাখতে হয় তা জানা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বেশ কয়েকটি স্টেপ ফলো করেই একটি প্রফেশনাল লোগো ডিজাইনের কাজ শেষ হয়। ততক্ষণ পর্যন্ত সরাসরি লোগো ডিজাইন করার উচিত নয়, যতক্ষণ পর্যন্ত না আপনি সেই লোগোর কনসেপ্ট পুরোপুরি বুঝতে পেরেছেন। চলুন এবার এমনকিছু পয়েন্ট সম্পর্কে জেনে নিই যেসব পয়েন্ট মাথায় রেখে ডিজাইন শুরু করতে হবেঃ-

 

স্টাইল

লোগোর স্টাইল নির্ধারণ করে নেওয়া হলো লোগো ডিজাইনের সর্বপ্রথম স্টেপ। কোনো কোনো ক্ষেত্রে শুধুমাত্র লোগোতে ছবিই থাকে। আবার কোনো কোনো লোগোতে কেউ লেখা সহ ছবি রাখতে চায়, আবার কেউ শুধুমাত্র স্টাইল করা লেখা থাকা লোগো পছন্দ করে৷ এক্ষেত্রে আপনি কোন ধরনের লোগো তৈরি করতে চান তা আগে থেকেই ভেবে নিবেন কিংবা ঠিক করে নিবেন। আপনার লোগো’র স্টাইল সম্পর্কে ধারনা নিতে গুগলে লোগোর বিভিন্ন স্টাইল খুঁজে নিয়ে তা দেখে নিতে পারেন।

 

ফন্ট

লোগো ডিজাইন তৈরি করার দ্বিতীয় ধাপে এসে আপনাকে লোগোর ফন্ট নির্বাচন করে নিতে হবে। কেননা একটি লোগোকে প্রফেশনাল করে তুলতে ভুমিকা রাখে এই ফন্ট। তবে এক্ষেত্রে আপনাকে একটি লোগোর সঠিক জায়গাতে উপযুক্ত ফন্ট নির্বাচন করে তা সেখানেই বসাতে হবে। ফলে সহজে প্রফেশনাল হয়ে উঠবে আপনার তৈরিকৃত লোগোটি। একটি লোগো ডিজাইনের কোন স্থানে কোন ফন্ট ব্যবহার করলে লোগো সুন্দর হবে তা নিয়ে যদি সংশয়ে ভুগেন তবে ডিজাইন শুরু করার আগে এই টাইপের লোগো চেক করে ধারণা নিয়ে নিতে পারেন। অতিরিক্ত ফন্ট স্টাইল ব্যবহারে লোগো’র ১২ টা বাজাবেন না কিন্তু।

 

কালার

লোগো ডিজাইনিং এর সবচেয়ে হার্ড বা সংশয়পূর্ন কাজ হলো লোগোর কালার নির্বাচন করা। কেননা একটি প্রফেশনাল লোগোর ক্ষেত্রে লোগো এর কালার সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে। একটি লোগোতে সঠিকভাবে কালার এডজাস্ট করতে পারলেই লোগোটিকে প্রফেশনাল লুকিং মনে হবে। মনে রাখবেন, আপনার লোগো দেখতে ততটা সুন্দর হবে, যতটা মনোযোগী হবেন আপনি আপনার লোগো এর কালার নিয়ে৷ তবে একটি লোগোতে দুই বা তোতোধিক কালার রাখাকেই বর্তমানে প্রফেশনাল লোগোর বৈশিষ্ট্য হিসেবে ধরে নেওয়া হয়।



 

লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার

একটি পারফেক্ট লোগো তৈরিতে আমাদের লোগো ডিজাইন এর জনপ্রিয় সফটওয়্যার সম্পর্কে হালকা ধারনা বা পুরোপুরি ধারনা থাকা উচিত। কেননা সফটওয়্যার লোগোকে আরো প্রফেশনাল লোগোতে পরিণত করে তুলতে পারে। চলুন কিছু লোগো ডিজাইন সম্পর্কে টুকটাক জেনে নিইঃ-

Dotpict

এটি একটি লোগো ডিজাইন সম্পর্কিত মোবাইল অ্যাপ। অনেক সাধারন কিন্তু কাজের অ্যাপ হিসেবে বর্তমানে এটি ডিজাইনিং সেক্টরে বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। আকর্ষণীয় Pixel Arts তৈরি করে লোগো ডিজাইন করতে এই অ্যাপটির তুলনা মেলা ভার৷ বর্তমানে অনেক ডিজাইনাররা এই অ্যাপটি ব্যবহার করে বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে লোগো ডিজাইনিং এর অসংখ্য প্রজেক্ট নিয়ে কাজ করছে। আশা করি Auto-save function, Zoom, Display of the grid, Export / share of work ইত্যাদির মতো জনপ্রিয় কিছু ফিচারের কারণে আপনারও খুব পছন্দ হবে এই অ্যাপটি। তবে অ্যাপটির প্রিমিয়াম ভার্সন ব্যবহার করতে হলে আপনাকে $6.49 payment করতে হবে।

 

Logo Maker by Shopify

Logo Maker by Shopify হলো একটি সহজে ব্যবহারযোগ্য লোগো ডিজাইনিং অ্যাপ বা সফটওয়্যার। আপনি চাইলে এর ১০০+ প্রফেশনাল লোগো ডিজাইন টেমপ্লেট ব্যবহার করেও কপিরাইট মুক্ত লোগো ডিজাইন করতে পারবেন। অ্যাপটিতে ডিজাইন করার সময় ডিজাইনে ব্যবহৃত Shapes, Colors, Icons, Text ইত্যাদি যোগ করতে গিয়ে আপনাকে কোনো সমস্যাতেই পড়তে হবে না।

এছাড়াও আপনি চাইলে Iris Logo Maker লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার, Adobe Illustrator লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার, Laughingbird লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার ইত্যাদি ব্যবহার করে ডিজাইনের কাজ করতে পারেন। 

 

ফ্রি লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার

আপনি চাইলে কিন্তু ফ্রি সফটওয়্যার এর মাধ্যমেও লোগো ডিজাইন করে নিতে পারেন। আজকের আর্টিকেলের এই পর্বে আমরা জানবো কিভাবে ফ্রি লোগো ডিজাইন সফটওয়্যার দিয়ে লোগো ডিজাইন করা যায় সেই সম্পর্কে। সুতরাং পুরো আর্টিকেলের সাথেই থাকুন৷

Canva

ক্যানভা

এই অ্যাপটি আমাদের সকলের কাছেই বেশ পরিচিত। তাই না? এতোদিন আমরা ক্যানভাকে ডিজাইন সম্পর্কিত একটি সামাজিক মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম হিসেবে ব্যবহার করলেও আজ আমরা এটিকে লোগো ডিজাইনিং এর কাজেও ব্যবহার করতে শিখবো। আপনি সহজেই এটিকে ফ্রি লোগো নির্মাতা সফটওয়্যার হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন৷ সেই সাথে এই সফটওয়্যারটি মোবাইল এবং কম্পিউটার দুটাতেই ব্যবহার করা যায় বলে এটি ব্যবহারের ক্ষেত্রে নিজের সুবিধামতোই ওয়ে সিলেক্ট করে নিতে পারবেন৷ এই সফটওয়্যারে আপনি যখনই কোনো লোগো ডিজাইন করতে যাবেন ঠিক তখন আপনাকে সফটওয়্যারটির বেশ কয়েকটি টেম্পলেট এবং ডিজাইন টুল সাহায্য করবে৷

 

Inkscape

বর্তমানে এটি ডিজাইনেরা ফ্রি এবং ওপেন সোর্স ভেক্টর ডিজাইন টুলস হিসেবে ব্যবহার করে আসছে। গ্রাফিক্স এর ক্ষেত্রে বিভিন্ন ডিজাইনের কাজ করার জন্যে অনেকের কাছেই সফটওয়্যারটি আদর্শ সফটওয়্যার হিসেবে বিবেচিত হয়ে থাকে। উইন্ডোজ, ম্যাক, লিনাক্স ইত্যাদি যেকোনো অপারেটিং সিস্টেমে আপনি চাইলে এটিকে ব্যবহার করতে পারেন। এতে কোনো সমস্যা নেই। পাশাপাশি যারা লোগো ডিজাইনের সাথে সাথে বিভিন্ন ইলাস্ট্রেশন নিয়ে কাজ করেন তারাও এই সফটওয়্যারটিকে কোনো ঝামেলা ছাড়াই ব্যবহার করে ডিজাইনিংয়ের বিভিন্ন কাজ করে নিতে পারেন।

 

লোগো ডিজাইন করে কত টাকা আয় করা যায়?

লোগো ডিজাইন করে আয় করতে হলে আপনাকে ডিজাইন সম্পর্কিত বিভিন্ন মার্কেটপ্লেসে একাউন্ট খুলে নিতে হবে। সেখানে নিয়মিত ডিজাইনার চেয়ে বিভিন্ন জব পোস্ট করা হয়। আপনিও সেসব জব পোস্টে নিজের সিভির পাশাপাশি পোর্টফোলিও দিয়ে রাখতে পারেন। ক্লায়েন্ট নিজেরাই আপনাকে যাচাই-বাছাই করে লোগো ডিজাইনের কাজ দিবে।

লোগো ডিজাইন করে কি পরিমাণে আয় করা যায় তা সম্পর্কে হয়তো অনেকেরই আইডিয়া নেই। অনেকেই মনে করেন একটি লোগো ডিজাইন করে আর কত টাকাই বা আয় করা যাবে! অথচ সত্যিটা হলো একটি লোগো বানানো যেমন কঠিন, তার মূল্য ততটা বেশি। আপনি যদি নিজেকে একজন দক্ষ বা প্রফেশনাল ডিজাইনার হিসেবে তৈরি করে মার্কেটপ্লেসে প্রবেশ করেন তবে আপনি প্রতি ডিজাইনিংয়ের জন্য ৫০ থেকে ৫০০ ডলার পর্যন্ত চার্জ করতে পারবেন।

গ্রাফিক্স ডিজাইন করে কত টাকা আয় করা যায়? জানতে পড়ুনঃ

 

শেষ কথা

আশা করি আমাদের আজকের এই লোগো ডিজাইন সম্পর্কিত পুরো আর্টিকেলটি আপনার ভালো লেগেছে। যদি ভালো লেগে থাকে তবে তা শেয়ার করে অন্য নিউবি লোগো ডিজাইনারদেরও পড়ার সুযোগ করে দিন। 

 

Facebook Comments
Md Shamim Mia
বর্তমানে দেশীয় একটি ডিজিটাল মার্কেটিং এজেন্সিতে চাকুরিরত। টুকটাক লেখালেখির পাশাপাশি অনলাইন পেশার প্রতি ব্যাপক আগ্রহ রয়েছে। নিজের সামান্য অভিজ্ঞতা থেকে সবাইকে ফ্রিল্যান্সিং পেশার সঠিক পথটা দেখাতে চাই। আশাকরি পাশে থাকবেন, দোয়া রাখবেন
https://freelancingtherapy.com
Top