You are here
Home > অনলাইন ইনকাম > প্রোগ্রামিং কি? প্রোগ্রামিং করে কত টাকা আয় করা যায়?

প্রোগ্রামিং কি? প্রোগ্রামিং করে কত টাকা আয় করা যায়?

প্রোগ্রামিং কি

 

সাধারণত আমরা আমরা ‘অ’, ‘আ’ দিয়ে বিভিন্ন শব্দের সমন্বয়ে একটি অর্থপূর্ন বাক্য তৈরি করি। সেই বাক্যের সাহায্যেই আমরা কথা বলি৷ প্রোগ্রামিং ব্যাপারটিও ঠিক তেমন। এটিও একটি ভাষা, আর এই প্রোগ্রামিংয়ের ব্যবহারটাও কিন্তু দিনের মতো সত্য। আজকাল কম্পিউটার অন করলেই যে হাজার হাজার ইন্সট্রাকশন কাজ করা শুরু করে তার পুরোটাই প্রোগ্রামিংয়ের ফল। সুতরাং এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ ভাষা যা ছাড়া প্রযুক্তিখাত অসম্ভবরকম শূণ্য। এই গুরুত্বের সুযোগকে কাজে লাগিয়ে আপনিও আর্ন করতে পারেন ঘরে বসেই। চলুন জেনে নিই প্রোগ্রামিং করে কিভাবে আয় করা যায় এবং প্রোগ্রামিং করে কত টাকা আয় করা যায় সে-সম্পর্কে।

বিজনেস কার্ড ডিজাইন করে কিভাবে আয় করা যায় জানতে পড়ুন

 

প্রোগ্রামিং কি

এক কথায় কম্পিউটারকে নির্দেশনা দিয়ে কোন কাজ করানোর সহজ/একমাত্র উপায়কে প্রোগ্রামিং বলা হয়। আর এই প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজে দেওয়া পারফেক্ট এবং নির্দিষ্ট নিয়মগুলো মেনেই প্রোগ্রামারদের প্রোগ্রাম লিখতে হয়।

একটি প্রোগ্রাম টেকনিক ঠিক তখনই সঠিকভাবে কাজ করছে বলে ধরে নেওয়া হবে যখন আপনি কম্পিউটারকে যেই কাজের কথাটি বললেন সেটি কম্পিউটার বুঝে ঠিকমত করে ফেলতে পারবে! প্রোগ্রামিং এর মূল উদ্দেশ্য হলো আপনার ইনপুটকে সঠিকভাবে বুঝে ঠিকঠাকভাবে আউটপুট দেখানো!



প্রতিটি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ গুলোকে সহজ ভাষায় বলা যায় কোডিংয়ের বাজিমাত! যা সাধারণত কম্পিউটারের সঙ্গে মানুষের যোগাযোগ স্থাপনের জন্য ব্যবহৃত হয়। প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এ প্রোগ্রামিং করতে জানা থাকলে আপনি একসাথে হাজার হাজার প্রোগ্রামিং টেকনিক রপ্ত করতে পারবেন! আর এই দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে মার্কেটপ্লেসে সঠিকভাবে কাজ করতে পারলে আপনাকে পেছনে তাকাতে হবে না। কিভাবে শিখবের প্রোগ্রামিং? বলছি পুরো ব্যাপারটি বুঝতে সাথেই থাকুন।

 

প্রোগ্রামিং এর কাজ কি?

নিয়মিত প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ ব্যবহার করে তৈরি করা মোবাইল গেইম খেলে, স্মার্টফোন, কম্পিউটার, কিংবা অন্য যে কোন ইলেক্ট্রনিক যন্ত্রপাতির সাহায্যে দিন কাটিয়ে প্রোগ্রামিংকেই আমাদের প্রয়োজনে ব্যবহার করছি। কেননা উপরের কোনো সেক্টরই প্রোগ্রামিং ছাড়া অসম্পূর্ণ। সুতরাং বুঝতেই পারছেন প্রোগ্রামিংয়ের কাজ কি!

আপনি জানেন কি, কম্পিউটারাইজড যেকোনো প্রোগ্রামকে কোন না কোন প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ দিয়েই রেডি করা হয়। সুতরাং এক্ষেত্রেও দেখা যাচ্ছে প্রোগ্রামিংয়ের প্রয়োজন পড়ছে। যেহেতু কম্পিউটার আমাদের ভাষা বুঝে না সেহেতু কম্পিউটারকে নিজেদের ভাষা বোঝাতেই দরকার পড়ছে এই প্রোগ্রামিংয়ের। আবার যেকোনো প্রয়োজনীয় অ্যাপ বা ওয়েবসাইটের সঠিক কাস্টমাইজেশনের ক্ষেত্রেও প্রোগ্রামিংয়ের চলে একক রাজত্ব!



কোন প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজই অন্যটি থেকে কোনো অংশেই কম নয়! এর মূল কারণ হলো প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজের কাজের প্রসারতা! প্রতিটি ল্যাংগুয়েজের রয়েছে আলাদা আলাদা কাজ! তাও আবার সে-সব কাজেরই প্রয়োজনীয়তা রয়েছে আমাদের নিত্যদিনকার রুটিনে! অনলাইন শপিংয়ের কথাই ধরা যাক! অনলাইন শপিং করতে গিয়ে আজকাল আমরা একটা ওয়েব সাইট ভিজিট করে থাকি! প্রোডাক্ট পছন্দ হলে আমরা পেমেন্ট পরিশোধ করি। মূলত এই সব কিছুর পেছনেই এই প্রোগ্রামিংয়ের গুরুত্ব রয়েছে৷

আবার হাতে থাকা মোবাইল ফোনটির কথাই চিন্তা করুন! বিভিন্ন সেটিংসের বিশাল সমুদ্র এই মোবাইল ফোন! অসংখ্য সেটিংসগুলির বিভিন্ন কাজও রয়েছে আবার। সেই কাজের ভিন্ন ভিন্ন আউটপুট তো থাকছেই! এক্ষেত্রেও কিন্তু প্রোগ্রামিং বা কোডিং ল্যাংগুয়েজের ভুমিকা রয়েছে। আশা করি প্রোগ্রামিংয়ের কাজ সম্পর্কে বুঝতে পেরেছেন!

 

প্রোগ্রামিং শিখে কি হবে?

যেহেতু প্রোগ্রামিং পুরোটাই লজিক সেহেতু যারা লজিক ভালোবাসে তারা ফ্যান্টাসির সাথে সাথে স্কিল ডেভেলপমেন্ট করতেও প্রোগ্রামিং শিখতে পারে। আর করা আয় করার কথা ভাবছে তাদের জন্য তো প্রোগ্রামিং বেশ ভালো অপশন! কেননা বর্তমানে এই প্রোগ্রামিংয়ের চাহিদা প্রচুর পরিমাণে বাড়ছে! আবার কঠিন ভেবে অনেকেই প্রোগ্রামিং নিয়ো ঘাটাঘাটি করতে চাইছে! ফলে বায়ার বাড়লেও সেলার বাড়ছে না! এক্ষেত্রে প্রোগ্রামিং শেখাটা খুব জরুরি বলে আমি মনে করি।

যারা কম্পিউটার এবং প্রোগ্রামার এর মধ্যকার বিষয়গুল নিয়ে রিসার্চ করতে বেশি পছন্দ করেন তারাও তাদের অবসর সময়কে কাজে লাগিয়ে প্রোগ্রামিং শিখে নিতে পারে। যদি একাডেমিক সাবজেক্ট হিসেবে প্রোগ্রামিং রিলেটেড টপিক থেকে থাকে তাহলে আপনি শিক্ষাজীবনে একটি ভালোই প্রভাব ফেলবে। আর যদি চান আর্ন জেনারেট করতে তাহলে বিভিন্ন অ্যাপ, ওয়েবসাইট, কম্পিউটার সেটিংস নিয়ে কাজ করেও ইনকাম করতে পারবেন।



প্রোগ্রামিং শেখার আরেকটি সবচেয়ে বড় কারণ হলো এই যুগে এসে প্রযুক্তির দিক দিয়ে সবচেয়ে বেশি এগিয়ে থাকা। কেননা এই যুগে একজন প্রোগ্রামিং এক্সপার্টের চাহিদা সবচেয়ে বেশি! অনলাইন মার্কেটপ্লেস তো থাকছেই! সেই সাথে থাকছে অফলাইন বিভিন্ন আইটি কোম্পানিতে সরাসরি ভালো বেতনের চাকরি লাভের সুযোগ।

 

প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ কত প্রকার?

বর্তমানের প্রযুক্তি জগতে সর্বমোট ১০০ টিরও বেশি প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ আবিষ্কৃত হয়েছে এবং তার ব্যবহার চলছে। সেই সাথে প্রতি বছর নতুন নতুন প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ হাজির হওয়ার ব্যাপার তো থাকছেই! যদিও সবগুলি প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজকে প্রধানত ২ ভাগে ভাগ করা হয়েছে! এগুলি হলোঃ-

  • সিস্টেম প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ
  • অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজ

উপরের দুই ধরণের প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজের কাজ কিন্তু আলাদা আলাদা! মূলত সিস্টেম প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজের দরকার পড়ে বিভিন্ন ডিভাইসের সিস্টেমেটিক কাজকর্মের জন্য! আবার অন্যদিকে অ্যাপ্লিকেশন প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজের দরকার পড়ে বিভিন্ন অ্যাপ তৈরি বা ডেভলপমেন্টের কাজের জন্য। যদিও প্রতিটি প্রোগ্রামিং ল্যাংগুয়েজকেই কম্পিউটারের বোধগম্য ভাষাতেই বানানো হয়েছে।



 

প্রোগ্রামিং শেখার ফ্রি ওয়েবসাইটগুলি কি কি?

কোডিং বা প্রোগ্রামিং এর মতো নতুন জিনিস শেখার জন্য আজকাল অফলাইন কোর্সের প্রয়োজন পড়ে না৷ চাইলে আপনি ঘরে বসেই প্রোগ্রামিং শেখার ফ্রি ওয়েবসাইটগুলির সাহায্যে প্রোগ্রামিং শিখে নিতে পারবেন! চলুন জেনে নিই কি কি নাম সেসব ফ্রি কোডিং লার্নিং ওয়েবসাইটের!

 

ইউডাসিটি

বিনামূল্যে বিশ্বব্যাপী উচ্চশিক্ষাকে ছড়িয়ে দিতে কাজ করছে ইউডাসিটি কোম্পানি। ফলে এটি বেশ সাড়া ফেলেছে বিশ্বব্যাপী। পিটার নরভিগ, সেবাস্তিয়ান থ্রুনেরা এখানে ক্লাস করান। যাদের ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, এইচটিএমএল ৫, পাইথন, জাভা, কম্পিউটার সায়েন্স, অ্যালগরিদম ও এআই বিষয়ে শেখার প্রতি আগ্রহ রয়েছে তারা এই ইউডাসিটি কোম্পানির সাহায্য নিতে পারেন। বিভিন্ন ভিডিও কন্টেন্টের মাধ্যমে এখানে প্রোগ্রামিং শেখানো হয়৷

 

টিম ট্রিহাউজ

টিম ট্রিহাউজ কোম্পানি মূলত এইচটিএমএল, সিএসএস, সিএসএস৩, জাভাস্কিপ্টম জোকুয়েরি, রুবি, রুবি অন রেইলস, আইওএস, অ্যান্ড্রয়েড, এইএক্স ও ডাটাবেজ শেখানো দক্ষ! ভিডিও এবং কুইজের সাহায্য প্রতিটি শিক্ষার্থী এখানে ক্লাস করার সুযোগ পায়৷ এই ওয়েবসাইটটি আপনাকে প্রজেক্ট ভিত্তিক কোর্স শেখানোর ক্ষেত্রে বেশ গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে।

 

কোড একাডেমি

এই সাইটে সাইন আপ করে যে কেউ প্রোগ্রামিং শিখতে পারে৷ বর্তমানে কোডিং শেখার জন্য জনপ্রিয় একটি সাইট এই কোড একাডেমি। প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ হচ্ছে C, C++, C#, Python, Perl, Ruby ইত্যাদি যারা বিনামুল্যে ঘরে বসে এবং সুবিধামতো সময়ে শিখতে চান তারা এই কোড একাডেমির সাহায্য নিতে পারেন৷



 

কোরসেরা

আপনি নিশ্চয় প্রিন্সটন ইউনিভার্সিটি, স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি, ওহাইয়ো স্টেট ইউনিভার্সিটি, ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন, মিশিগান বিশ্ববিদ্যালয়ের জনপ্রিয়তার কথা জানেন! হ্যাঁ! এসব জনপ্রিয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপকরাই পরিচালনা করে থাকেন এই কোরসেরা কোম্পানির কোর্সগুলি৷ এখানে ভর্তি হলে একজন ফ্রি শিক্ষার্থী হিসেবে আপনি পাবেন সি প্লাস প্লাস (C++) প্রোগ্রামিং, অ্যালগরিদম, আর্টিফিসিয়াল ইনটেলিজেন্ট, ক্রিপটোগ্রাফি, কম্পিউটার আর্কিটেকচারসহ বিভিন্ন বিষয়ে দক্ষ হবার সুযোগ!

 

প্রোগ্রামিং করে কত টাকা আয় করা যায়?

একজন পারফেক্ট প্রোগ্রামিং এক্সপার্ট প্রতি ঘণ্টায় ১০-১৫ ডলার বা তারও বেশি উপার্জন করতে সক্ষম! তবে এক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই দক্ষ হতে হবে এবং ওই প্রতি ঘন্টার কাজ শতভাগ অর্থবহ হতে হবে।

 

প্রোগ্রামিং সম্পর্কিত অনেকগুলি প্রশ্নের উত্তর আশা করি পেয়ে গেছেন! এবার কাজে নেমে পড়ার পালা! সুতরাং ফ্রিতে ঘরে বসে প্রোগ্রামিং শেখা শুরু করুন আজই! পাশাপাশি একটি প্রফেশনাল ইমেইজও তৈরি করার চেষ্টা করুন। এতে করে শেখা শেষে কাজ পেতে একটুও সময় লাগবে না।

Facebook Comments
Md Shamim Mia
বর্তমানে দেশীয় একটি ডিজিটাল মার্কেটিং এজেন্সিতে চাকুরিরত। টুকটাক লেখালেখির পাশাপাশি অনলাইন পেশার প্রতি ব্যাপক আগ্রহ রয়েছে। নিজের সামান্য অভিজ্ঞতা থেকে সবাইকে ফ্রিল্যান্সিং পেশার সঠিক পথটা দেখাতে চাই। আশাকরি পাশে থাকবেন, দোয়া রাখবেন
https://freelancingtherapy.com
Top